Posts

Freelancing Training Center

Freelancing & Outsourcing Course for High Officials – হাই অফিসিয়ালদের জন্য ফ্রীল্যান্সিং কোর্সে ভর্তি চলছে

হাই অফিসিয়ালদের জন্য ফ্রীল্যান্সিং কোর্সে ভর্তি চলছে

আপনি যদি অফিসের উর্ধতন কর্মকর্তা হয়ে থাকেন-

  • নিজের অফিসের প্রয়োজনে আকর্ষনীয় ডিজাইন শিখতে চান।
  • কর্পোরেট ওয়ার্ল্ডে নিজের মেধা যোগ্যতার সমন্ময় করে লোভনীয় ইনকাম প্রত্যাশা করেন।
  • সফটওয়ার ব্যবহার করে নিজের প্রফাইল অথবা সোসাল মিডিয়ার ব্যানার ডিজাইন করে ব্যবহার করতে চান।
  • পছন্দের ছবি ইডিটিং করে বিভিন্ন জায়গায় ব্যবহার করতে চান।
  • অথবা ফ্রিল্যান্সিং এর একটা গাইড লাইন জানতে চান।

 

তাহলে এই কোর্সটি আপনার জন্যই। আসন সংখ্যা সীমিত। আমাদের এই ব্যাচটা মাত্র  -১০ জন ছাত্র নিয়ে পরিচালিত হবে।

 

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে ফ্রীল্যান্সিং কাজ শেখার মাধ্যমে আপনার ভবিষ্যৎ উপার্জনের স্থায়ী  সম্ভাবনা  তৈরী  করুন এবং স্বাবলম্বী হোন।

 

ডিজিটালাইজেশনের এই যুগে অনলাইন প্ল্যাটফর্ম হচ্ছে উপার্জন এর জন্য সবচেয়ে সহজ ও ভালো  মাধ্যম। ফ্রীল্যান্সিং এর মাধ্যমে সহজেই অনলাইন থেকে ইনকাম করা সম্ভব। পৃথিবীতে যতগুলো আকর্ষনীয়  পেশা  আছে  তার  মধ্যে  ফ্রীল্যান্সিং  অন্যতম,  কারণ  এখানে  রয়েছে  কাজের  ক্ষেত্রে  পূর্ণ  স্বাধীনতা  এবং  অবাধ স্বাধীনতা। নিজের পছন্দমত সময়ে ও স্থানে কাজ করতে চাইলে এই পেশা হতে পারে আপনার উপার্জনের উপযুক্ত মাধ্যম। ফ্রিল্যান্সিং মুক্ত পেশা হওয়ার কারণে আপনি আপনার  প্রয়োজন অনুযায়ী সময় ও মেধা ব্যবহার করে প্রচুর আয় করতে পারবেন ।

 

এই কোর্সে যা থাকবে

১. এডোবী ফটোশপ

২. এডোবী ইলাস্ট্রটর

৩. এডোবী ইনডিজাইন

 

আমাদের অন্যান্য কোর্সসমূহ :

♦ গ্রাফিক্স ডিজাইন + ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসে কাজের যোগ্যতা তৈরী করা।

♦ এসইও এন্ড ডিজিটালা মার্কেটিং + ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসে ওয়াল্ড ওয়াইড কাজ করার সুযোগ

♦ প্রফেশনাল ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট + ফ্রিল্যান্স  মার্কেটপ্লেসে কাজের যোগ্যতা তৈরী করা।

 

ফ্রিল্যান্সিং এর ইমম্পর্টেন্ড ও বেশি ইনকাম করা যায় এমন কয়েকটি কাজ-

 

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট:

 

প্রযুক্তির অগ্রযাত্রার এই সময়ে বিশ্বের ছোট-বড় ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ছাড়াও ব্যক্তিগত ও সামাজিক ক্ষেত্রে প্রায় সবাই ধীরে ধীরে ইন্টারনেটের দিকে ঝুঁকে পড়ছেন । সবাই চাচ্ছেন তার একটি ভার্চুয়াল ঠিকানা হোক । কারণ, একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে একটি প্রতিষ্ঠান একদিকে যেভাবে এর গ্রাহকদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন করতে পারে, অপরদিকে বিভিন্ন শহরে বা দেশে অবস্থিত নিজ নিজ শাখার সাথে অভ্যন্তরিন যোগাযোগও সহজে এবং কম খরচে করতে পারে । ওয়েব দুনিয়ায় বর্তমানে মোট ওয়েবসাইটের সংখ্যা প্রায় ৬৫ কোটিরও বেশি। প্রতিদিনই তৈরি হচ্ছে হাজার হাজার ওয়েবসাইট। এই বিপুল সংখ্যক ওয়েবসাইট তৈরির জন্য ডিজাইনের পাশাপাশি প্রয়োজন ওয়েব ডেভেলপমেন্টের। নতুন ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট কিংবা পুরনো ওয়েবসাইটকে নতুনভাবে ডেভেলপ করার জন্য প্রয়োজন ভালোমানের ওয়েব ডেভেলপার। এ কারণেই অনলাইন মার্কেটপ্লেসসহ লোকাল মার্কেটে ওয়েব ডেভেলপমেন্টের চাহিদা বেড়েই চলেছে ।

 

একথা নিঃসন্দেহে বলা যায়, ওডেস্ক, ফ্রিল্যান্সার, ইল্যান্সসহ জনপ্রিয় অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে সবচেয়ে চাহিদাসম্পন্ন ও নির্ভরযোগ্য কাজ ওয়েব ডেভেলপমেন্ট। ওডেস্কে প্রায় সবসময়ই ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ক্যাটাগরিতে ১০ হাজারের অধিক জব থাকে। Fiverr প্রায় ৩৫ শতাংশ কাজই ওয়েব ডেভেলপমেন্টের।  প্রতিনিয়ত যুক্ত হচ্ছে শত শত কাজ। ওডেস্কে প্রতি ঘণ্টায় ৫০ ডলারের বেশি রেটে ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ করছেন এমন অনেকেই রয়েছেন। তবে এ আয়ের পরিমাণ নির্ভর করে ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে নিজেকে কতটা দক্ষ করতে পারছেন, তার ওপর। একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে অবশ্যই এইচটিএমএল, সিএসএস, পিএইচপি, জাভাস্ক্রিপ্ট, জেকোয়ারি, মাইএসকিউএলসহ সংশ্লিষ্ট বিষয় ভালোভাবে জানতে হবে। এ বিষয়গুলো ভালোভাবে শিখে শত শত কোটি ডলারের ওয়েব ডেভেলপমেন্টের বাজারে যেকেউ প্রবেশ করতে পারেন ।

 

ওয়েব  গ্রাফিক্স ডিজাইন:

আপনার  আঁকাআঁকিতে  ঝোঁক বেশি! ক্রিয়েটিভ কিছু করতে চান? সময় পেলেই কমপিউটারের পেইন্ট টুলস, ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর নিয়ে গাছ, পাখি, ফুল, ফল, বাড়ির দৃশ্য, কারও নাম বা ছবি নিয়ে কাজ শুরু করেন। পার্টটাইম বা ফুলটাইম কাজ খুঁজছেন? অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কাজ করে অপেক্ষাকৃত বেশি আয় করতে চান? তাহলে ভেবেচিন্তে নেমে পড়ুন গ্রাফিক্স ডিজাইনে। অন্যান্য চাকরির চেয়ে গ্রাফিক্স ডিজাইন পেশাটি সবচেয়ে নিরাপদ ও ঝামেলাহীন। নিরাপদ ও ঝামেলাহীন বলার কারণ হলো অন্যান্য পেশার বিপরীতে গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কোনো কাজের অভাব হয় না। এটি একটি সম্মানজনক পেশা। একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার বেশ কিছু কালার, টাইপফেস, ইমেজ এবং অ্যানিমেশন ব্যবহারের মাধ্যমে গ্রাহকের চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম হন। এর আউটপুট ডিজিটাল বা প্রিন্ট উভয়ই হতে পারে। নিজেকে ভালোভাবে তৈরি করতে পারলে একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের কাজের অভাব হয় না।  ইন্টারএক্টিভ মিডিয়া, প্রমোশনাল ডিসপ্লে, জার্নাল, করপোরেট রিপোর্ট, মার্কেটিং ব্রোশিউর, সংবাদপত্র, ম্যাগাজিন, লোগো ডিজাইন, ওয়েবসাইট ডিজাইনসহ বিভিন্ন সেক্টরে কাজের চাহিদা রয়েছে। লোকাল মার্কেট বা অনলাইন মার্কেটপ্লেস যাই বলি না কেনো, প্রতিনিয়ত গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজের পরিমাণ বাড়ছে ।

 

ডিজাইনারদের বেতন কত?

ডিজাইনারদের বেতন নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ডিজাইনার স্যালারিজের মতে, একজন ডিজাইনার প্রতি বছরে গ্রাফিক্স ডিজাইন বা এ সম্পর্কিত চাকরি বা কাজ করে 10-50 হাজার ডলার আয় করতে পারেন। সেই হিসেবে বাংলাদেশী প্রায় 8 – 40 লাখ টাকা আয় করতে পারেন ।  বাংলাদেশে গ্রাফিক্স ডিজাইনে ডিপ্লোমাধারীর বেতন মাসে ২০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। তবে ব্যাচেলর ফাইন আর্টসে ডিগ্রিধারীদের বেতন মাসে এক থেকে দুই লাখ টাকা হতে পারে। এছাড়া অনলাইন মার্কেটপ্লেসে একটি লোগো ডিজাইন করলে পাঁচ ডলার থেকে শুরু করে দুই হাজার ডলার পর্যন্ত পাওয়া যায়। তবে দক্ষতার ক্ষেত্রেও বেশি ক্রিয়েটিভ কাজ হলে তা পাঁচ হাজার ডলার পর্যন্ত হতে পারে। এছাড়া একটি ওয়েবসাইটটের ফাস্ট পেজ ডিজাইন করার ক্ষেত্রে ৫০ ডলার থেকে শুরু করে তিন হাজার ডলার পর্যন্ত পেতে পারেন । ৯৯ডিজাইনস ডটকম, ফ্রিল্যান্সার, ওডেস্কসহ অনেক অনলাইন মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেখানে এ কাজগুলো পাওয়া যায়। তাই ওয়েব ও গ্রাফিক্স ডিজাইন হতে পারে একজন ফ্রিল্যান্সারের সবচেয়ে উপযোগী পেশা ।

 

ব্লগিং অ্যান্ড অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং:

মার্কেটপ্লেসের কাজ না হলেও অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়ার অন্যতম উপায় হচ্ছে ব্লগিং ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। বাংলাদেশ থেকেই এখন প্রচুর তরুণ-তরুণী ব্লগিং ও অ্যাফিলিয়েটের মাধ্যমে নিজেদের স্মার্ট ক্যারিয়ার নিশ্চিত করেছেন। এ খাত থেকে প্রতিমাসে ২ থেকে ১০ হাজার ডলার আয় করছেন এমন সফল ব্লগার ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটারের সংখ্যাও এখন অনেক। ব্লগিং ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং প্রায় একই বিষয়। দুটিই একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে করা সম্ভব। ব্লগিংয়ের মাধ্যমে শুধু টাকা নয়, পাওয়া যায় বিপুল সম্মানও। আন্তর্জাতিক বিশ্বে ব্লগারদের সাংবাদিক হিসেবেও এখন গণ্য করা হয়। স্মার্ট ক্যারিয়ার হিসেবে তাই ব্লগিং এখন ওয়েব উদ্যোক্তাদের মধ্যে হট কেক হিসেবে পরিচিত।

 

একজন ব্লগার কত আয় করতে পারেন?

ব্লগিংয়ের মাধ্যমে অনেক উপায়েই আয় করা যায়। এর মধ্যে গুগল অ্যাডসেন্স আমাদের দেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় উপায়। সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্টের এ বিজ্ঞাপন প্লাটফর্মের মাধ্যমে প্রতিমাসে ১০ হাজার ডলারের ওপরে আয় করছেন এমন বস্নগারের সংখ্যাও বাংলাদেশে রয়েছে। গুগল অ্যাডসেন্স এবং সরাসরি বিজ্ঞাপন স্পেস বিক্রিসহ নানা উপায়ে আয় করতে পারেন একজন বস্নগার। নিজের ব্লগের মাধ্যমে একটি নির্দিষ্ট পণ্যকে সুপারিশ করেও (রেফার) আয় করার সুযোগ রয়েছে একজন ব্লগারের, যাকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলা হয়। ইন্টারনেট থেকে ভালো আয়ের ক্ষেত্রে এ অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংও একটি উপযোগী মাধ্যম। এ মাধ্যমে আপনি অন্য যেকোনো আয়ের উপায়, যেমন অ্যাডসেন্স থেকেও বেশি আয় করতে পারবেন ।

 

বিশাল এ ক্ষেত্রটিতে এগিয়ে যেতে আপনাকে কৌশলী হতে হবে। জানতে হবে পরীক্ষিত সব উপায় । ওয়েবসাইট তৈরি করা থেকে শুরু করে অ্যামাজান অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম, প্রোডাক্ট রিসার্স (চাহিদা সম্পন্ন লাভবান পণ্য নির্বাচণ করা), কিওয়ার্ড রিসার্স (সার্চ ইঞ্জিন থেকে টার্গেটেড ভোক্তা প্রোডাক্টভিত্তিক কিওয়ার্ড নির্বাচন), প্রোডাক্ট রিভিউ লেখা (কাস্টমারকে পণ্য প্রদর্শন ও লেখনীর মাধ্যমে পণ্য কেনায় উৎসাহিত করা), অনলাইন মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে সাইটে টার্গেট ট্রাফিক আনাসহ বিভিন্ন বিষয় জানতে হয় । এ ক্ষেত্রে ইংরেজিতে কনটেন্ড লিখতে পারা বা লেখালেখিতে আগ্রহীরা এগিয়ে এসে সম্মানজনক এ পেশায় নাম লেখাতে পারেন ।

 

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বা এসইও :

ইন্টারনেট বাণিজ্যের এ যুগে ওয়েবসাইট ছাড়া কোনো প্রতিষ্ঠান তো কল্পনাই করা যায় না । আবার ওয়েবসাইট থাকলেই কিন্তু এখন চলে না । এটি সর্বত্র পৌঁছে দিতে ব্যাপক মার্কেটিংয়েরও প্রয়োজন হয় । ওয়েবসাইটকে সর্বত্র ছড়িয়ে দিতে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি উপায় । ওয়েবসাইটকে গুগলের প্রথম দিকে নিয়ে আসার যে কৌশল সেগুলোকেই মূলত সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বলা হয় । দিন দিন বিশ্বব্যাপী যত ওয়েবসাইট বাড়ছে, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের কাজের ক্ষেত্রও অনেক বাড়ছে । ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতেও তাই দিন দিন বাড়ছে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের কাজ । আর এ হিসেবে ফ্রিল্যান্সার হতে চাওয়া তরুণ-তরুণী সহ আগ্রহী সকলেরই অন্যতম পছন্দ হতে পারে এ ক্ষেত্রটি ।

 

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজার এর আয় কত?

ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসগুলোর তথ্যানুসারে, একজন দক্ষ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজার মাসে ৫০ হাজার থেকে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারেন । প্রয়োজন সঠিক নির্দেশনা, প্রচেষ্টা, ধৈর্য এবং সময় । বর্তমানে ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েরাও এ পেশায় বেশ ভালো করছেন । জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন সম্পর্কিত ব্লগ এসইওমজের ডাটা অনুযায়ী প্রতি ১০০ জন ফ্রিল্যান্স সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজারদের মধ্যে ২৩ জনই নারী । ওডেস্কের বিলিয়ন ডলারের এ মার্কেটপ্লেসের ১২ শতাংশ এখন আমাদের দখলে ।  আর এর মধ্যেই সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের (এসইও) কাজ সবচেয়ে বেশি করা হয় । শুধু ওডেস্ক নয়, অন্যান্য মার্কেটপ্লেসেও সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের কাজে বাংলাদেশীদের পদচারণা বাড়ছে । ফ্রিল্যান্সার ডটকম আয়োজিত কনটেন্ট রাইটিং ও সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (এসইও) ২০১২ প্রতিযোগিতায় পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশের ফ্রিল্যান্সারদের হারিয়ে বাংলাদেশের সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ও ইন্টারনেট মার্কেটিং সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান প্রথম হয়। আর এজন্য সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বিশ্বে বাংলাদেশ এখন খুব পরিচিত একটি নাম ।

 

আপনি যদি ইংরেজি মোটামুটি জানেন, তবে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন শেখা শুরু করে দিতে পারেন । এসইওর এমন কিছু কাজ আছে যেগুলো খুব কঠিন কিছু নয় ।  দু’তিন মাসের ট্রেনিং নিয়েই এ ধরনের কাজ করা যায় । কোথায় পাবেন প্রশিক্ষণ । ইন্টারনেট থেকেই শিখতে পারেন সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের খুঁটিনাটি । প্রয়োজনে নিতে পারেন প্রশিক্ষণ । ক্যারিয়ার শুরু করতে পারেন চাহিদাসম্পন্ন এ কাজে ।

 

ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার আগে আমাদের কথা :

অনেকেই না জেনে, না বুঝে নেমে পড়েন ফ্রিল্যান্সিংয়ে। ফলে দেখা যায় কিছুদূর এগিয়ে আর সামনে যেতে পারছেন না। তাই যে কাজ পছন্দ করেন বা করতে ভালো লাগে তেমন কোনো কাজ ভালোভাবে জেনে তারপর মার্কেটপ্লেসে আসা উচিত। অনলাইন মার্কেটপ্লেসে পাঁচ শতাধিক ধরনের কাজ রয়েছে, যেখান থেকে আপনার পছন্দ অনুযায়ী বেছে নিতে হবে আপনি কী পারবেন আর কি করবেন। এরপর অনলাইন রিসোর্স বা ভালো কোনো প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে কিভাবে মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে হয় এসব জেনেই কাজে নামতে হবে। এমনটিই বলেছে জনপ্রিয় অনলাইন মার্কেটপ্লেস বিজ্ঞ যারা আছেন।

 

আপনি কোন বিষয়টি ভালোভাবে পারবেন সেটা জেনে বুঝে কাজ শুরু করুন :

অপর শীর্ষ ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস ওডেস্কের কান্ট্রি অ্যাম্বাসাডর বলেন, ভালো আয় করা যায় এমন বিষয় বিবেচনা না করে দেখতে হবে আপনি কোন বিষয়টি ভালোভাবে পারবেন। কোনো কাজ শুরু করার আগে অনলাইনের রিসোর্স থেকে সে সম্পর্কে সম্যক ধারণা নিতে পারেন। এরপর আপনার যে কাজটি করা সম্ভব মনে হবে, তা ভালোভাবে শিখতে হবে। কোনো গাইডলাইনের দরকার হলে ফেসবুক ওডেস্কসহ অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোর ফেসবুক পেজ, গ্রুপ ও ফোরামে যুক্ত হতে পারেন। মনে রাখতে হবে, অনলাইনে কেউ আপনাকে এমনিতেই ডলার দেবে না। আপনার কাছ থেকে ভালো কিছু আউটপুট পেলেই তারা কাজটি করতে দেবে ও পে করবে। তাই যাই করেন কাজটি আগে ভালোভাবে জেনে নিন। ভালোভাবে কাজ জানলে কাজের অভাব হয় না।

 

শুরুর আগে বেসিক কিছু বিষয় শিখে শুরু করুন

ফ্রিল্যান্স আউটসোর্সিং প্রশিক্ষণদাতা উত্তরা ইনফোটেকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাইদুল ইসলাম জানান, অনেকেই না বুঝে ট্রেনিং নিতে চলে আসেন ফ্রিল্যান্সিং কাজ শিখতে। আমরা তাদেরকে সবসময়ই বলি, আপনি যে বিষয়ে কাজ করতে চান তার বেসিক বিষয়গুলো অনলাইন রিসোর্স থেকে জেনে আসেন। তাহলে এ বিষয়ে ভালো করতে পারবেন কি না, তা বুঝতে পারবেন। তা না হলে প্রশিক্ষণ নেয়ার সময় হারিয়ে যেতে হবে। অনলাইনেই অনেক রিসোর্স আছে, সেখান থেকে আপনি যেকোনো কাজ শিখতে পারেন। এ বিষয়ে বিনামূল্যে কোনো গাইডলাইনের দরকার হলে আমাদের কাছে আসতে পারেন। তবে যদি স্বল্প সময়ে কাজ শিখতে চান তাহলে সংশ্লিষ্টদের গাইডলাইন অথবা প্রশিক্ষণ নিতে হবে।

 

কনটেন্ট রাইটিং

অনলাইনে আয় করার সহজ ও সম্ভাবনাময় উপায় হলো লেখালেখি, যাকে আর্টিকেল রাইটিং বা কনটেন্ট রাইটিং বা কনটেন্ট ডেভেলপিং বলা হয়। যারা ইংরেজিতে ভালো তারাই লেখালেখিকে ক্যারিয়ার হিসেবে নিতে পারেন। কনটেন্ট রাইটাররা বিভিন্ন কাজের জন্য কনটেন্ট লিখে থাকেন। ওয়েব কনটেন্ট ছাড়াও বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের জন্য রিসোর্স বই, ব্রোশিউর, লিফলেট বা অন্যান্য প্রচারণার কাজে কনটেন্ট ডেভেলপ করা হয়ে থাকে।

 

কনটেন্ট রাইটিং এর কাজের ক্ষেত্র ও কত আয় করতে পারেন?

একজন কনটেন্ট ডেভেলপারের অনেক কাজের ক্ষেত্র রয়েছে। ক্ষেত্রগুলো হলো- কপিরাইটিং, বস্নগ লেখা, ওয়েব কনটেন্ট, প্রেস রিলিজ রাইটিং, ট্রান্সলেশন, ট্রান্সক্রিপশন, সামারাইজেশন, রিজিউম রাইটিং, পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন ইত্যাদি। লেখার বিষয়টি নির্ভর করে লেখকের দক্ষতা, রুচি, সহযোগিতা সর্বোপরি যে সাইট বা বিষয়ের জন্য লেখা হচ্ছে তার চাহিদার ওপর। তবে বিষয়বস্তু যা-ই হোক না কেনো, একজন ওয়েব কনটেন্ট রাইটারকে কোনো নির্দিষ্ট টপিক নিয়ে রীতিমতো গবেষণা করে ডাটাবেজ তৈরি করতে হয়।

 

বিশ্বে কনটেন্ট রাইটার এর মর্যাদা :

উন্নত বিশ্বে একজন কনটেন্ট রাইটারকে সাংবাদিক বা গবেষক হিসেবেও অভিহিত করা হয়। বিষয়বস্তু অনুযায়ী ঠিক করে নিতে হয় লাইন অব অ্যাকশন। লেখা অবশ্যই প্রাঞ্জল ও গুরুত্বপূর্ণ হতে হবে। রাইটার হিসেবে মনে রাখতে হবে যারা ওয়েবসাইটে আপনার লেখা পড়বেন, তারা মিনিটপ্রতি বা ঘণ্টাপ্রতি নির্দিষ্ট পয়সা খরচ করে পড়বেন। সুতরাং তারা চাইবেন সবচেয়ে কম সময়ে প্রয়োজনীয় জিনিস পড়তে। তাই তথ্যনির্ভর, সংক্ষিপ্ত বিষয়ভিত্তিক লেখাই আপনাকে লিখতে হবে।

 

কন্টেন্ট কপি করা যাবে না!!!

কনটেন্ট লেখার ক্ষেত্রে কোনোভাবেই অন্যের লেখা কপি করা যাবে না। এতে লেখক হিসেবে আপনার গ্রহণযোগ্যতা যেমন বাড়বে, তেমনি উপার্জনের পথও প্রশস্ত হবে। কনটেন্ট রাইটার হতে গেলে আপনাকে অবশ্যই ইংরেজিতে ভালো হতে হবে। প্রয়োজন শুদ্ধ বানান। আমেরিকান স্পেলিং শুদ্ধভাবে জানতে হবে। গ্রামার সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে। এ ক্ষেত্রে ব্রিটিশ ও আমেরিকান গ্রামার সম্পর্কে সম্যক ধারণা থাকা ভালো। আর ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য প্রয়োজনীয় যে বিষয়গুলো রয়েছে, যেমন ক্লায়েন্টের সাথে যোগাযোগ সমন্বয়, কাভার লেটার লেখা, আপডেটেড থাকা এসব বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। শুদ্ধ বানান ও ভাষা লেখার জন্য গ্রামারলির ফ্রি অথবা প্রিমিয়াম মেম্বারশীফ নিয়ে কাজ করতে পারেন। যদি রিরাইট করে কন্টেন্ড রেডি করতে চান তাহলে স্মলএসইও ওয়েব সাইটের সহযোগীতায়ও সেটা করতে পারেন। তবে অবশ্যই প্লাগারিজম চেক করে নিশ্চিত হতে হবে আপনার কন্টেন্ট ইউনিক আছে কি না।

 

বাংলাদেশে এমন অনেক ফ্রিল্যান্স লেখক আছেন যারা ঘণ্টায় ১০ থেকে ৩০ ডলার পর্যন্ত আয় করে থাকেন। এছাড়া দেশী-বিদেশী ইন্টারনেট মার্কেটিং অথবা কনটেন্ট মার্কেটিং প্রতিষ্ঠানেও আপনি ৩০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা বেতনে চাকরি করতে পারেন। তাই কনটেন্ট রাইটার হিসেবেও ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়তে পারেন।

 

আশা করি আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে আপনার আগ্রহের জায়গাটুকুতে কিছুটা হলেও যুক্ত করতে পেরেছে এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানার জন্য যোগাযোগ করতে পারেন, আমাদের ঠিকানা:

 

উত্তরা ইনফো টেক

বাড়ী- ১৮ (৪র্থ তলা), সোনারগাঁও জনপথ রোড,
সেক্টার-১১, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০
ফোন: 01970900933, 01714262717
ই-মেইল: admin@uttarainfotech.com
ওয়েব: www.uttarainfotech.com

 

USA OFFICE:

Abdullah Mahmood
101 Filmore Ave. Eggharbor Twp.
NJ 08234, USA.
Ph: +1 6174359384

গ্রাফিক ডিজাইন কোর্সে আপনাকে স্বাগতম

=== গ্রাফিক ডিজাইন কোর্সে আপনাকে স্বাগতম ===

আগামী ১লা ডিসেম্বর, ২০১৮ শনিবার ৪ টায় গ্রাফিক ডিজাইন এর নতুন ব্যাচ শুরু হতে যাচ্ছে…

৩ মাসের কোর্স চলাকালীন আপনি হতে পারবেন একজন ফ্রিল্যান্সার। কাজ করতে পারবেন অনলাইন ও আমাদের টিম এ…

আমাদের গ্রাফিক্স ডিজাইন কোর্সটিতে যা যা থাকছেঃ

Software: Adobe Photoshop CC

Clipping Path/Clipping Mask.
Image Editing.
Image Retouching.
Background Remove.
Business Card Design.
Letterhead Design.
Email Signature Design.
Flyer Design.
Social Media Business Profile Picture.
Social Media Cover Design.
Banner Design.
Print Design.
Design Setup on Mockup Template.
UI/UX Design
Website Template

Software: Adobe Illustrator CC

Path.
Font awesome.
Color concept & Logo design.
Victor Convert/Vector Tracing.
Calendar design.
Icon Design.
Business Card design/Visiting Card design.
Book Cover Design
T-Shirt Design
Flyer Design.
Letterhead Design.
Brochure Design.
Custom Email Signature Design.
Social Media Cover (Facebook, Twitter, YouTube etc.)
Banner Design.
Vector Portrait.
Invoice.
Print Design.
Design Setup on Mockup Template.

আমাদের কোর্সটি শেষ করে আপনি যে সমস্ত জব অনায়াসে করতে পারবেনঃ

Graphics Designer.
Brand Designer.
Creative Director.
UI Designer.
Brand Promoter.
Logo Designer.
Photoshop Artist
Pre-Press Technician.
Visualizer.
Creative Executive.
UI/Web Designer (Graphic part).

যারা আমাদের কোর্স গুলোতে অংশগ্রহন করবেন, তাদের উপার্জন শুরু না হওয়া পর্যন্ত আমাদের পূর্ণ সহযোগিতা পাবেন। আমাদের ফ্রিল্যান্সিং এক্সপার্টদের মাধ্যমে নিয়মিত মেন্টরিং সেশনের ব্যবস্থা করা হবে। যা আপনার কর্মব্যবস্থা নিশ্চিত করতে শতভাগ ভূমিকা রাখবে।

তাই দেরি না করে চলে আসুন আপনার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে।

🏠 আমাদের অফিসের ঠিকানা:

বাড়ী নং ১৮ (৪র্থ তলা), সোনারগাঁও জনপথ রোড,

সেক্টর ১১, উত্তরা, ঢাকা – ১২৩০

সরাসরি যোগাযোগ করুন:
📞 : 01780 44 55 73, 01970 277 233

Digital Marketing services, Bangladesh | Online Freelancing Training

Digital Marketing services | Online Freelancing Training

From the earliest starting point of the cutting edge human progress, individuals were utilized to a term called “Promoting“. It’s a vital term for any individual who thinks to elevate their business to the world. The celebrated organization who has the spot in this segment, they all pursue the strategies of promoting. What’s more, Digital Marketing Services is one of them.

Numerous business magnets pursue the fitting standards and directions that is the reason they are currently fruitful in their field. After quite a long time the business holder is making vital strides for elevating their organizations to the general population. Also, they are investing a vast measure of cash just to make the 100% advantages. Individuals are likewise following the strategies of developing their business and furthermore they are getting extremely client thanks and trust.

Regardless, nowadays, nothing is in very close. By and by they are depending upon the online business to some degree meet with the all-inclusive community eye to eye. In this pattern, numerous individuals are not becoming acclimated to thinking about Digital Marketing Services. Advanced Marketing Services is the most knowing realities of this period. Individuals are getting into it. Numerous specialists are changing their track in online business. As it’s an Internet period and numerous individuals are watching out for the Internet each minute. So countless are sitting tight for their day by day needs on the Internet

Why You Need Digital Marketing Services

Contemplating the realities we are taking the initiative prospectives for the customers with the goal that they can get what they are craving for. Uttara Infotech is such an organization who has the 100% one of a kind quality to play out any kind of undertaking identified with the Digital Marketing. We have been doing the administrations since 2011. Furthermore, from that point forward our organization has been working hand to hand to give the expert work. We trust that promoting is the reflection of any business. So to get the achievement you require appropriate business direction and sign. Without it, you can not make your fantasy. So considering every one of the actualities our organization brings proficient Digital Marketing Services.

So contact us for more details and get the best digital marketing services.

Call: 01611 900 933
Facebook

🏠 আমাদের অফিসের ঠিকানা:

বাড়ী নং ১৮ (৪র্থ তলা), সোনারগাঁও জনপথ রোড,

সেক্টর ১১, উত্তরা, ঢাকা – ১২৩০

সরাসরি যোগাযোগ করুন:
📞 : 01780 44 55 73, 01970 277 233

ফ্রিল্যান্সিং ফ্রি সেমিনার, গ্রাফিক ডিজাইন ফ্রি সেমিনার

Graphic Design course

===== ফ্রিল্যান্সিং ফ্রি সেমিনার, গ্রাফিক ডিজাইন ফ্রি সেমিনার =====

আগামী ৯ই নভেম্বর, ২০১৮ ফ্রিল্যান্সিং এ গ্রাফিক ডিজাই্ন ও গ্রাফিক ডিজাই্ন সম্ভাবনা ও ভবিষ্যৎ এর উপর ফ্রি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।

একজন সফল ডিজাইনার ও ফ্রিল্যান্সার হতে হলে প্রয়োজন সঠিক গাইডলাইন আর নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান। উত্তরা ইনফোটেক সঠিক গাইডলাইনের মাধ্যমে আপনাকে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে গড়ে তুলবে। বিস্তারিত জানতে সেমিনারে আসুন।

সেমিনার এ যে সকল বিষয় এর উপর বিশেষ গুরুত্ত দেয়া হবেঃ

১. গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে আপনি ৩বছর পর কোথা্য় থাকবেন?
২. আপনি কি একজন সফল ডিজাইনার হতে পারবেণ?
৩. গ্রাফিক্স ডিজাইনারের সম্ভাবনা ও চাহিদা দিন দিন কতখানি বাড়ছে এবং কেন?
৪. অনলাইন মার্কেটপ্লেস কি?
৫. ফ্রিল্যান্সিং করা যায় কোন কোন বিষয়ে?
৬. ফ্রিল্যান্সিং-এ ভবিষ্যৎ কেমন?
৭. কিভাবে মার্কেটপ্লেসে সঠিক ভাবে আ্যাকাউন্ট খুলবেন?
৮. কিভাবে আপনার উপার্জিত ডলার আপনি পাবেন?
৯. সফল কিভাবে হবেন?

তাই দেরি না করে আমাদের ফ্রি সেমিনারে অংশ নিন।

সেমিনারটি সম্পূর্ণ ফ্রি এবং সকলের জন্য উম্মুক্ত।

সেমিনার এর তারিখঃ – ৯ই নভেম্বর , ২০১৮, শুক্রবার
সময়ঃ- বিকাল ৪ টা – ৬ টা
আসন সংখ্যা: ৫০টি, কোন রেজিস্ট্রেশন ফি লাগবে না।
আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে আসন বরাদ্দ করা হবে।

রেজিস্ট্রেশন করুনঃ- https://goo.gl/forms/NTLvi9NFcb2UTB6s1

🏠 আমাদের অফিসের ঠিকানা:

বাড়ী নং ১৮ (৪র্থ তলা), সোনারগাঁও জনপথ রোড,

সেক্টর ১১, উত্তরা, ঢাকা – ১২৩০

সরাসরি যোগাযোগ করুন:
📞 : 01780 44 55 73, 01970 277 233

ভর্তি চলছে ! এসইও এন্ড ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স এ ভর্তি চলছে !!

Digital marketing Service

Digital marketing Service

Digital marketing Service in Dhaka | Online Freelancing training

As a Digital marketing Service in Dhaka, we believe that people should know every aspect of SEO and Digital Marketing. That’s why we provide our services by the professional and experienced trainers. So it’s our responsibility to provide 100% information to our students, Check our success Story.

 

ভর্তি চলছে ! এসইও এন্ড ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স এ ভর্তি চলছে !!

আগামী ২৪ অক্টোবর, ২০১৮ বিকেল ৩টা – ৫টা এসইও এন্ড ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স এর নতুন ব্যাচ শুরু হতে যাচ্ছে…

আউটসোর্সিং কাজে সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (এসইও) এর চাহিদা সম্পর্কে এখনও অনেকেই অবগত নন। গুগল সার্চ ইঞ্জিন এর প্রথম পাতায় নিজের প্রতিষ্ঠানের নামটি ধরে রাখতে হাজার হাজার ডলার মার্কেটিং এর উপর খরচ করে যাচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন ব্রান্ড কোম্পানি গুলি। কারন মার্কেটিং প্রতিটি কোম্পানির প্রাণ। আর এই প্রাণকে বাঁচিয়ে রাখতে প্রতি নিয়তই বাড়ছে অনলাইন মার্কেটিং এর চাহিদা। এই সম্ভাবনাময় সেক্টরে দক্ষ কর্মী তৈরি করা, বেকার যুব সমাজকে আয় করার উপযোগী ও নারীদেরকে স্বাবলম্বী করে তোলাই আমাদের মূল লক্ষ্য। কিন্তু এই ক্ষেত্রে শুধু আমরা চাইলেই হবে না সাথে সাথে আপনাদেরকেও আমাদের সাথে প্রতিযোগিতায় নামতে হবে। তবেই কাঙ্খিত সাফল্য অর্জন সম্ভব।

Why Need Digital marketing Service in Dhaka

শুধুমাত্র সঠিক গাইডলাইন এর অভাবে কেউই সঠিক ভাবে কাজ করতে পারে না, এমনকি কাজ জানা স্বত্তেও বেকার জীবন যাপন করছেন। তাই ফ্রিল্যান্সিং এ এসইও এন্ড ডিজিটাল মার্কেটিং আপনার জন্য হতে পারে একটি সম্ভাবনাময় কর্মক্ষেত্র। একটি ল্যাপটপ আর ইন্টারনেট সংযোগ নিয়ে খুব কম সময়ে ঘরে বসেই অনলাইনে আয় করতে পারেন। কারন বিশ্বের অনেক নামিদামি কোম্পানি বসে আছেন শুধু কাজ দেয়ার জন্য। তাই আপনি কেনো নিজেকে সে কাজ নেয়া থেকে বিরত থাকতে। বর্তমানে এশিয়াতে ফ্রি-লান্সিং এর চাহিদা দিন দিন বারছে। বহিঃবিশ্বে যদি একই কাজ ওদের লোক দিয়ে করায় তবে তারা রীতিমত হিমশিম খাবে। তাই তারা বসে আছেন আমাদের ভারত মহাদেশের মানুষদের কাজ দেয়ার জন্য।

তাই দেরি না করে চলে আসুন আপনার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে।

ভর্তি এবং প্রশিক্ষণ ফিঃ

>  ক্লাশ হবে সপ্তাহে ২ দিন তিন মাস ।
>  প্রতিটি ক্লাসের সময়ঃ ২ ঘণ্টা করে।
>  প্রশিক্ষণ ফিঃ ১২,৫০০ টাকা (কোর্স ফি ২ টা ইন্সটলমেন্টে দেয়া যাবে)

 

🏠 আমাদের অফিসের ঠিকানা:

বাড়ী নং ১৮ (৪র্থ তলা), সোনারগাঁও জনপথ রোড,

সেক্টর ১১, উত্তরা, ঢাকা – ১২৩০

সরাসরি যোগাযোগ করুন:
📞 : 01780 44 55 73, 01970 277 233

Outsourcing Training Center in Dhaka | Online Freelancing Training

As a leading Outsourcing Training Center in Dhaka, we have been the most promising company comparing to the other companies. Our expert teacher and other stuff make every service like professional. So it’s our duty to provide the best services so that they can be capable of doing any work.

Outsourcing Training Center

ভর্তি চলছে ! ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট কোর্স এ ভর্তি চলছে !

আগামী ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ বিকেল ৩টায় ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট এর নতুন ব্যাচ শুরু হতে যাচ্ছে…

ফ্রীল্যান্সিং অথবা আউটসোর্সিং বর্তমানে অনলাইনে টাকা উপার্জন করার অনেকগুলো মাধ্যমের মধ্যে একটি জনপ্রিয় এবং সত্যিকার সহজ মাধ্যম। আপনার নিজের কোন দক্ষতা দিয়ে অনলাইনে ঘরে বসেই অন্যান্যদের কাজের অথবা সমস্যার সমাধান করে দিয়ে আয় করতে পারেন স্মার্ট এমাউন্টের টাকা। ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং এ অনেক ধরনের কাজ পাওয়া যায় তবে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট সংক্রান্ত কাজ এখানে সবচেয়ে বেশি।

আমরা অনেকেই স্বপ্ন দেখি ওয়েব ডেভেলপার হবো। কারণ হিসেবে অনেকেই মনে করেন, এটা বর্তমান সময়ের জন্য একটা স্মার্ট প্রফেশন। অনেকেই নতুন নতুন কনসেপ্ট এবং আইডিয়া নিয়ে কাজ করতে পছন্দ করেন, যেটা ওয়েব ডেভেলপারদের জন্য খুবই জরুরী একটা বিষয়। এ ধরণের প্রবনতা যাদের মধ্যে আছে তাদের অনেকেই স্বপ্ন দেখেন নিজেকে ভবিষ্যতের একজন ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে, এখানে তার পছন্দের জিনিসটাকে প্রফেশনাল কর্মকান্ডের মধ্যে নিয়ে আসার সুযোগ রয়েছে।

আমাদের ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট কোর্স এ কোর্সটিতে যা যা থাকছে:

1. HTML
2. CSS
3. PHP, MySQL (Basic)
4. WordPress
5. Bootstrap
6. Java Script
7. J Query
8. Domain & Hosting
9. Basic Photoshop
10. Upwork, Freelancer, Fiverr.

তার জন্য দরকার ইচ্ছে শক্তি , ধৈর্য্য , আর কঠোর পরিশ্রম করার মন মানসিকতা । কারণ একটা কাজে এক দিনে সাফল্য আসেনা তার জন্য প্রয়োজন হয় কঠোর পরিশ্রম করা ।

ফ্রিল্যান্সিংএ সফলতার জন্য টাকার লোভ ত্যাগ করে কাজে দক্ষতা অর্জনের দিকে বেশি নজর দিতে হবে। দক্ষলোকদের সমাদর সবজায়গার মতই ফ্রিল্যান্সিং এর ক্ষেত্রেও। সেজন্য সবার প্রথমে রিসোর্স থেকে কাজ শিখে সেগুলোর বাস্তবভিত্তিক কাজ করে দক্ষতা অর্জন করলেই অনলাইনে কাজের রেট এবং চাহিদা দুটি বৃদ্ধি পাবে। এরকম চাহিদাপূর্ণ অবস্থানে আসার জন্য অবশ্যই কিছুটা সময় দিতে হবে। মনে রাখবেন, অদক্ষ ব্যক্তিদের টাকার পিছনে দৌড়াতে হয়। কিন্তু দক্ষ ব্যক্তিদের পিছনে টাকা দৌড়ায়।

তাই দেরি না করে চলে আসুন আপনার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে।

🏠 আমাদের অফিসের ঠিকানা:

বাড়ী নং ১৮ (৪র্থ তলা), সোনারগাঁও জনপথ রোড,

সেক্টর ১১, উত্তরা, ঢাকা – ১২৩০

সরাসরি যোগাযোগ করুন:
📞 : 01780 44 55 73, 01970 277 233

গ্রাফিক ডিজাইন কোর্স এর নতুন ব্যাচ এ ভর্তি চলছে !

ভর্তি চলছে ! ভর্তি চলছে ! ভর্তি চলছে !

আগামী ০১/০৮/২০১৮ গ্রাফিক ডিজাইন কোর্স এর নতুন ব্যাচ শুরু হতে যাচ্ছে …

ঘরে বসেই সম্মান জনক আয় করতে চান? আপনার যদি থাকে ক্রিয়েটিভিটি আর স্বাধীন ভাবে কাজ করার মানসিকতা তবে গ্রাফিক্স ডিজাইনে রয়েছে আপনার অপার সম্ভাবনা। আপনার এই অপার সম্ভাবনাকে বাস্তবায়ন করতে উত্তরা ইনফোটেক নিয়ে এলো চমৎকার একটি গ্রাফিক্স ডিজাইন কোর্স।

আমাদের কোর্সটি শুরু হবে সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে, প্রতি ব্যাচে আসন সংখ্যা মাত্র ১৩ জন, প্রত্যেকের জন্য থাকছে আলাদা কম্পিউটার আর থাকছে সার্বক্ষনিক প্রবলেম সলিউশন ব্যাবস্থা।
আমাদের গ্রাফিক্স ডিজাইন কোর্সটিতে যা যা থাকছেঃ

Software: Adobe Photoshop CS6,CC

Clipping Path/Clipping Mask.
Image Editing.
Image Retouching.
Background Remove.
Business Card Design.
Letterhead Design.
Email Signature Design.
Flyer Design.
Social Media Business Profile Picture.
Social Media Cover Design.
Banner Design.
Print Design.
Design Setup on Mockup Template.
UI/UX Design
Website Template

Software: Adobe Illustrator CS6,CC

Path.
Font awesome.
Color concept & Logo design.
Victor Convert/Vector Tracing.
Calendar design.
Icon Design.
Business Card design/Visiting Card design.
Book Cover Design
T-Shirt Design
Flyer Design.
Letterhead Design.
Brochure Design.
Custom Email Signature Design.
Social Media Cover (Facebook, Twitter, YouTube etc.)
Banner Design.
Vector Portrait.
Invoice.
Print Design.
Design Setup on Mockup Template.

আমাদের কোর্সটি শেষ করে আপনি যে সমস্ত জব অনায়াসে করতে পারবেনঃ
Graphics Designer.
Brand Designer.
Creative Director.
UI Designer.
Brand Promoter.
Logo Designer.
Photoshop Artist
Pre-Press Technician.
Visualizer.
Creative Executive.
UI/Web Designer (Graphic part).

যারা আমাদের কোর্স গুলোতে অংশগ্রহন করবেন, তাদের উপার্জন শুরু না হওয়া পর্যন্ত আমাদের পূর্ণ সহযোগিতা পাবেন। আমাদের ফ্রিল্যান্সিং এক্সপার্টদের মাধ্যমে নিয়মিত মেন্টরিং সেশনের ব্যবস্থা করা হবে। যা আপনার কর্মব্যবস্থা নিশ্চিত করতে শতভাগ ভূমিকা রাখবে।

🏠 আমাদের অফিসের ঠিকানা:

বাড়ী নং ১৮ (৪র্থ তলা), সোনারগাঁও জনপথ রোড,

সেক্টর ১১, উত্তরা, ঢাকা – ১২৩০

সরাসরি যোগাযোগ করুন:
📞 : 01780 44 55 73, 01970 277 233

দিন ব্যাপী ফ্রিল্যান্সিং ওয়ার্কশপ

 

Free seminar Outsourcing

===== দিন ব্যাপী ফ্রিল্যান্সিং ওয়ার্কশপ =====

=== দক্ষ ব্যক্তিদের দক্ষ ফ্রিল্যান্সারে পরিণত করাই আমাদের অঙ্গীকার ===

অনেকেই বিভিন্ন বিষয়ে ভাল কাজ জানেন যেমন- গ্রাফিক ডিজাইন, ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট, এসইও, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট, ডাটা আন্ট্রি, অফিস অ্যাসিস্ট্যান্ট, আকাউন্টস, ফটোগ্রাফি, টুডি-থ্রিডি ইত্যাদি।

আমাদের লক্ষ্য এসব কাজ জানা মানুষদেরকে অনলাইনে ইনকাম এর ব্যবস্থা করে দেয়া। আমরা জানি শুধুমাত্র সঠিক গাইডলাইনের অভাবেই তারা অনলাইনে ইনকাম করতে পারছে না। আবার অনেকে জানেই না তাদের এই অভিজ্ঞতা দিয়ে অনলাইন থেকে ইনকাম করা যায়। আমরা খুবই আশাবাদী, আমাদের দিন ব্যাপী এই কোর্স’টা সে সব মানুষের চোখে আশার আলোর জ্বালবে। একদিনেই আমরা তাদের অনলাইনে কাজের পদ্ধতি শিখিয়ে দিব, ইনশাআল্লাহ।

অনেক সময় চাইলেই সব কিছু পাওয়া যায় না। তার জন্য থাকতে হয় আত্মবিশ্বাস আর অদম্য পরিশ্রম। আবার অনেক সময় কর্মদক্ষতা থেকেও অনেকে কাজ করতে পারে না। কিন্তু অনেকেই মনে করেন অনলাইনে আয় করা খুবই সহজ কাজ।
তাই না বুঝেই মার্কেটপ্লেসে আকাউন্ট করে অথবা আনপ্রোফেশনাল কারো নিকট থেকে কাজ শিখে কাজ করার চেষ্টা করেন। পরবর্তীতে দেখা যায় সেটা আর হয়ে উঠে না। কারণ তার কাজের দক্ষতা নেই, জানে না কিভাবে কাজ করতে হয়, কিভাবে বায়ার ম্যানেজ করতে হয়, ইত্যাদি। এতে করে সে তো ইনকাম করতে পারলোই না শুধুমাত্র দেশের সুনাম নষ্ট হল। এমন অনভিজ্ঞতার জন্য মার্কেটপ্লেস বাংলাদেশীদের একটা খারাপ রেকর্ড তৈরি হচ্ছে। এ কারণে অনেক সময় ভাল কাজ জানা বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সাররাও ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন।

তাই দরকার পরিপূর্ণ অভিজ্ঞতা সম্পন্ন অর্থাৎ যিনি নিজে মার্কেটপ্লেসে কাজ করেন এমন কারো নিকট থেকে কাজ শিখে মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট খুলে কাজ শুরু করা। এই প্রতিযোগিতার যুগে যত দক্ষ হওয়া যাবে ততই কাজ পাওয়া যাবে। এটাই স্বাভাবিক।

ফ্রিল্যান্সিং কোনো ব্যক্তি তথা দেশের উন্নয়নের সম্ভাবনার দুয়ার খুলে দিতে পারে।

যদি এই সম্ভাবনাময় ব্যক্তিদের একজন হতে চান ?
তাহলে এখনি চলে আসুন সঠিক ফ্রিল্যান্সিং গাইডলাইন পেতে।
ওয়ার্কশপটির রেজিষ্ট্রেশন ফি = ১,০০০/- টাকা।

আসন মাত্র = ২০টি, আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে বরাদ্ধ হবে।

সেমিনার এর তারিখঃ – ০১ লা জুন, ২০১৮, শুক্রবার
সময়ঃ- সকাল ১০ টা – বিকাল ৬ টা পর্যন্ত, যোহর ও আসর নামাজের বিরতি এবং সবাই মিলে ইফতার ।

🏠 আমাদের অফিসের ঠিকানা:

বাড়ী নং ১৮ (৪র্থ তলা), সোনারগাঁও জনপথ রোড,

সেক্টর ১১, উত্তরা, ঢাকা – ১২৩০

সরাসরি যোগাযোগ করুন:
📞 : 01780 44 55 73, 01970 277 233